Sunday , June 20 2021
Breaking News
Home / খবর / আইন শৃংখলা বাহিনীর মাদক বিরোধী অভিযান

আইন শৃংখলা বাহিনীর মাদক বিরোধী অভিযান

স্টাফ রিপোটার: মেহেরপুরের যুব সম্প্রদায়কে যুব সম্পদ হিসেবে গড়ার প্রত্যয়ে জেলা আইন শৃংখলা বাহিনী মাদককে শুন্যের কোঠায় আনবার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এবিষয়ে মেহেরপুরের সাংষ্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা বলছে মাদক বিরোধী অভিযান ঠিক লড়্গ্যেই এগিয়ে নিচ্ছেন মেহেরপুর আইন শৃংখলা বাহিনী। জেলাটিতে একাধিক মাদক বিক্রি চক্র যুব সম্প্রদায়ের একটি অংশকে দীর্ঘদিন থেকে মাদক সরবরাহ করে অর্থ বানিজ্য করে যাচ্ছিল। অন্যদিকে মাদকের ভয়াবহতা যুব সম্প্রদায়কে অকল্যানের পথ দেখাচ্ছিল। মাদকসেবীদের পরিবারগুলো সমাজ ব্যবস্থায় হয়ে পড়ছিল একাকী, মাদকসেবীদের দাম্পত্য জীবনে স্ত্রী’রা কষ্টের ভার সইতে না পেরে বেচে নিচ্ছিল আত্মহত্যার পথ ও মাদকসেবীদের অভিভাবকরা হচ্ছিল বিভিন্ন ভাবে নির্যাতিত। বিষয়গুলোকে মেহেরপুরের প্রায় ৭ লড়্গ মানুষের ১নং সমস্যা হিসাবে চিহ্নিত করে পুলিশ সুপার হামিদুল আলম শুরম্ন করেছিলেন মাদক বিরোধী অভিযান। তিনি মনে করেন মেহেরপুরের সমৃদ্ধায়নের স্বপ্নগুলোকে মাদক ড়্গতিগ্রস্থ করছে তাই পুলিশ সুপার মাদকের বিরম্নদ্ধে চিরম্ননী অভিযান শুরম্ন করেছিলেন যা আজো অব্যাহত। এ প্রসঙ্গে ভৈরব সাহিত্য সাংস্কৃতিক চত্বর এর সাধারন সম্পাদক আনিসুজ্জামান মেন্টু KBD news কে তার অভিমত জানিয়ে বলেন মাদকের দৈরাত্ব আমাদের সভ্যতা ও সাংষ্কৃতিকে গ্রাস করছিল, আমাদের স্বপ্নকে করতে চেয়েছিল হত্যা কিনত্ম মেহেরপুরের আইন শৃংখলা বাহিনী মাদকের বিরম্নদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করে বাচিয়েছেন আমাদের অসিত্মত্মত্ব। এছাড়াও জাতীয় সাহিত্য পরিষদের মেহেরপুর জেলা শাখার সভাপতি ও প্রবন্ধকার নুরম্নল আহমেদ এই প্রতিবেদককে বলেন মাদকের বিরম্নদ্ধে কাজ করে মেহেরপুরের পুলিশ সুপার এরই মধ্যে সবার আত্মার আত্মীয় হয়ে উঠেছেন। তিনি এসেছিলেন বলেই মাদকের জিম্মি দশা থেকে বেচেছে আমাদের যুব সম্প্রদায়। এ বিষয়ে তাঁর সাফল্য কামনা করছি কেননা যোগ্য ব্যক্তিরাই পারে জাতিকে তার অর্জন দেখাতে।

Check Also

মেহেরপুরের গাংনীতে বিদ্যুত স্পৃষ্টে গৃহবধূর মৃত্যু

মেহেরপুরের গাংনীতে বিদ্যুত স্পৃষ্টে গৃহবধূর মৃত্যু

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম ঃ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাথুলী ইউনিয়নের রাধাগোবিন্দপুর ধলা গ্রামে বিদ্যুত স্পৃষ্ট হয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *