Tuesday , May 11 2021
Breaking News
Home / খবর / কুষ্টিয়ায় ৩ দিনব্যাপি লালন স্মরণোৎসব শুরু

কুষ্টিয়ায় ৩ দিনব্যাপি লালন স্মরণোৎসব শুরু

লালন স্মরণোৎসব

কুষ্টিয়া থেকে শরিফ মাহমুদ: 

কুষ্টিয়া-৩ সদর আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল-আলম হানিফ বলেছেন, বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহ সকল ধর্মের সীমাবদ্ধতা ছাড়িয়ে সদা সত্য পথে চলতে মানুষকে মানবতাবাদীর পথে ডাক দিয়ে ছিলেন। তিনি অহিংস মানবতার ব্রত নিয়ে মানুষের কল্যাণে অসংখ্য গান সৃষ্টি করে গেছেন। তাঁর এই অমর সৃষ্টি সঙ্গীত কোন ধমের্র মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল না। আমাদের সমাজে এক শ্রেণীর লোক ধর্মকে হাতিয়ার বানাতে চাই। তারা ধর্ম ব্যবহার করে পেট্রোল বোমা মেরে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করছে। ধর্মের নামে সাধারণ নিরীহ মানুষের উপর নৃশংস বরবর্তা ও হানাহানি করে জাতিকে বিভক্তি করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। যা কোন সভ্য সমাজের কাম্য নয়। ধমের্র দোহায় দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে জাতিকে বিভক্ত করা যাবে না। লালনের আর্দশের অসামপ্রদায়িক চেতনার শিক্ষায় দিক্ষা নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হবে।

গত বুধবার রাতে বাউল সম্রাট ফকির লালন সাঁইয়ের ছেঁউড়িয়ার আখড়া বাড়ীতে লালন একাডেমির আয়োজনে বাউল সম্রাটের স্মরণোৎসবের ৩ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

হানিফ আরো বলেন, লালন ফকির জাতহীন মানব দর্শন ও মানবতার ভাবধারাকে প্রতিষ্ঠিত করতে একটি অসামপ্রদায়িক সাম্যের সমাজ চেয়ে ছিলেন তিনি। লালন মানুষকে শিখিয়েছিলেন কোন ধমের্র মধ্যে আবদ্ধ থেকে সমপ্রীতি বজায় রাখা যায় না। সকল ধমের্র উপর মানব ধর্ম। ধর্ম একটি উৎসব। ধর্ম যার যার উৎসব সবার। আর এই বিষয়টি ভাবতে শিখিয়েছে ফকির লালন সাঁই। ফকির লালন এর চিমত্মা চেতনায় বিশ্বাসী হয়ে সমাজের সকল প্রকার হানাহানি কাটাকাটি দুর করা সম্ভব। এই মরমী সাধকের প্রাতিষ্ঠানিক কোন শিক্ষা না থাকলেও তিনি ছিলেন আধুনিক সমাজ বিন্যাসে স্ব-শিক্ষিত। তাঁর জ্ঞানের ভান্ডার আর পাঁচজন সাধারণ মানুষের চেয়ে অনেক বেশি ছিল। ধর্ম আর জাতি ভেদাভেদ ভুলে মানুষের কল্যাণে কি অসীম মর্মকথা বলেছেন তিনি। আজকের সমাজের এসব ববর্রতা ও জাতিকে বিভক্তির হাত থেকে বাঁচাতে লালনের মানবতার কল্যানের আর্দশকে গ্রহন করতে হবে। আসুন এই মহামানবের মানব দর্শন অনুসরন করে দেশটাকে সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলি।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই আগত অতিথিদের কুষ্টিয়া লালন একাডেমীর পক্ষ থেকে ফুলের তোড়া, ক্রেষ্ট ও আত্মসুদ্ধির প্রতীক একতারা উপহার দিয়ে বরণ করে নেন।

কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার প্রলয় চিসিম, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, সহ-সভাপতি রবিউল ইসলাম, কুমারখালি উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান খান, কুষ্টিয়া জজ কোর্টের জিপি এ্যাড.আখতারুজ্জামান মাসুম, পিপি এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী, লালন একাডেমির সাবেক সাধারণ সম্পাদক তাইজাল আলী খান প্রমুখ। মুখ্য আলোচক হিসেবে সাঁইজির মতাদর্শ তুলে ধরে আলোচনা করেন বিশিষ্ট লালন গবেষক এ্যাড.লালিম হক, আলোচক হিসেবে বাউল তত্ত্ব নিয়ে আলোচনা করেন লালন মাজারের প্রধান খাদেম মোহাম্মদ আলী। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কুমারখালী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সাহেলা আক্তার।স্বাগত বক্তব্য রাখেন লালন একাডেমির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সেলিম হক।

প্রধান অতিথি মাহবুবউল-আলম হানিফ খুব শীঘ্রই কুষ্টিয়া লালন একাডেমীতে একটি সুন্দর রেষ্ট হাউস নির্মাণের কাজ শুরু হবে বলে জানান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী ও কুমারখালি উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান খান লালন একাডেমির মাঠ সংস্কারের জন্য ৪ লাখ টাকা প্রদান করবেন বলে ঘোষনা দেন।

আলোচনা শেষে দ্বিতীয় পর্বে লালন মঞ্চে বিভিন্ন শিল্পি ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সমন্বয়ে লালন সংগীতি পরিবেশিত হয়। এতে সংগীত পরিবেশন করেন দেশের খ্যাতিনামা শিল্পীবৃন্দসহ লালন একাডেমীর স্থানীয় শিল্পিরা। ৩ দিনব্যাপী স্মরণোৎসবের অনুষ্ঠানমালার সার্বিক পরিচালনা করেন মাহমুদুর রহমান আল কাদেরী।

Check Also

মোল্লাহাটে ৩৩৩-এ খবর পেয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিলেন ইউএনও

মিয়া পারভেজ আলম  (বাগেরহাট) প্রতিনিধি ঃ  বাগেরহাটের মোল্লাহাটে ৩৩৩-এর মাধ্যমে খবর পেয়ে অসহায় দুস’ ৫’টি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *