Tuesday , May 11 2021
Breaking News
Home / খবর / মুজিবনগরের ৪টি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ৭ বিদ্রোহীসহ ২০ প্রার্থী

মুজিবনগরের ৪টি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ৭ বিদ্রোহীসহ ২০ প্রার্থী

ষ্টাফরিপোটার : মেহেরপুরের তিন উপজেলার মধ্যে মুজিবনগর উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ৩১ মার্চ। এই প্রথম দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হওয়ায় বড় দু’টি দলের মনোনীত প্রার্থীদের মধ্যে বেশ উৎফুল্ল মনোভাব বিরাজ করছে। নিজ দলের কর্মী সমর্থকদের নিয়ে গণসংযোগ করতে চরম ব্যস্ততার মধ্যে সময় কাটছে প্রার্থীদের। বিজয় ছিনিয়ে আনতে প্রার্থীরা সকাল থেকে রাত অবধি ছুটছেন ভোটারদের দারে দারে। তাদের মন জয় করতে দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। নানামুখী প্রচার প্রচারণায় ভোটার এলাকাগুলো সরগরম হয়ে উঠেছে। বসে নেই অন্যান্য প্রার্থীরাও। তারাও নিজেদের মত প্রচার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

তবে ভোটাররা বলছেন, স্থানীয় পর্যায়ের নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীদের শুধু দলীয় প্রতীকের উপর ভর করে বিজয় আসবে না। প্রার্থীদের প্রতীকের পাশাপাশি আচার আচরণ, কর্মকান্ড, গুণাবলী এবং আত্মীয়-স্বজনদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা বিজয়ী হতে বড় ভূমিকা রাখবে। বর্তমানে যে প্রার্থীরা ইউপি চেয়ারম্যান পদে বহাল রয়েছেন তাদের পূণঃবিজয়ের ক্ষেত্রে তাদের কর্মকান্ড ও মানুষের সাথে আচরণ প্রধান ভূমিকা রাখবে বলেও জানিয়েছেন ভোটাররা।

সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদের প্রার্থীরাও নির্বাচনী প্রচারণায় কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছেন। চেয়ারম্যান পদে দুই প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল এবং আওয়ামী লীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থী ও বিএনপি’র এক বিদ্রোহী প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় এখন পর্যন্ত ৭ বিদ্রোহী সহ মোট ২০ প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন। এদিকে সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৪২ জন এবং সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে ১২৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্‌দ্বীতা করবেন। মুজিবনগর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার আব্দুল হাদি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মুজিবনগরের চার ইউনিয়নের মধ্যে মহাজনপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ও মুজিবনগর উপজেলা আ‘লীগের সাধারণ সম্পাদক আমাম হোসেন মিলু, বিএনপি’র মনোনীত প্রার্থী আহসান হাবীব সোনা, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মুজিবনগর উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক মিসকিন মোহাম্মদ ও বিএনপি সমর্থক তোফাজ্জেল হোসেন প্রতিদ্বন্‌দ্বীতায় মাঠে রয়েছেন।

বাগোয়ান ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আ‘লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আয়ুব হোসেন, বিএনপি’র মনোনীত প্রার্থী মানজারুল ইসলাম, মুজিবনগর উপজেলা জামায়াতের ক্যাসিয়ার সেলিম হোসেন খান প্রতিদ্বন্‌দ্বীতা করছেন।

মোনাখালী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রফা গাইন, বিএনপির মনোনীত প্রার্থী জেলা সেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক আজিমুদ্দিন গাজী, মুজিবনগর উপজেলা জামায়াতের সেক্রটারী খাঁনজাহান আলী এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মোল্লা ও সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নাগরিক ঐক্যজোটের ব্যানারে যুবলীগ নেতা মফিজুর রহমান নির্বাচন করছেন।

দারিয়াপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা অ্যাড. কলিম উদ্দিন, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী দারিয়াপুর ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি আনছারুল হক কাঠু, জেলা জাতীয় পার্টি (জে.পি) যুগ্ম সম্পাদক মওলাদ আলী খান, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি তৌফিকুল বারি, আওয়ামী লীগ সমর্থক হাশেম আলী, সতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি সমর্থক আশাদুল হক ও সতন্ত্র প্রার্থী জামাত নেতা আওলাদ হোসেন নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন।

দু’দলেরই দলীয় প্রার্থীরা বলেছেন, বিদ্রোহী প্রার্থীরা তাদের বিজয়ের ক্ষেত্রে তেমন কোন প্রভাব ফেলতে পারবে না। কারণ ভোটাররা ভোট দেবে দলীয় প্রতীক দেখে। তবে ভোটাররা এ বক্তব্যের সাথে দ্বিমত পোষণ করে বলেছেন, শুধু দলীয় প্রতীক দেখে এবং ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের ভয় দেখিয়ে বিজয় ছিনিয়ে আনা সম্ভব নয়। বিশেষ করে মেহেরপুরে তার প্রমাণ মিলেছে- গাংনী উপজেলার গাংনী পৌরসভা ও এর আগের দু’টি উপজেলা নির্বাচনে। ভোটাররা বিনয় প্রকাশ করে আরও জানান, নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে যাতে ভোটাররা ভোট দিতে পারে তা নিশ্চিত করতে হবে প্রশাসনকে।

Check Also

ঈদ বাজার

ঈদ বাজার

  মোঃ আব্দুল মজিদ   : পবিত্র রমজান শেষ করে মুসলমানদের ঘরে প্রবেশ করে মহা আনন্দের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *