Tuesday , May 11 2021
Breaking News
Home / খবর / ৭২০ ইউপি’তে ভোটগ্রহণ আজ

৭২০ ইউপি’তে ভোটগ্রহণ আজ

৭২০ ইউপি'তে

ষ্টাফরিপোটার : দেশে  প্রথমবারের মতো ইউপি নির্বাচন দলীয় প্রতীকে, দলীয়ভাবে অনুষ্ঠিত হবে আজ। প্রথম দফায় ৭৩২ ইউপিতে ভোটগ্রহণ হবে। এর মধ্যে আজ হবে ৭২০টি ইউপিতে বাকি ১২টি হবে ২৭ মার্চের মধ্যে। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী গত রোববার মধ্যরাত থেকেই বন্ধ হয়ে গেছে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা। গতকাল রাতের মধ্যে কেন্দ্রগুলোতেও পৌঁছে যাবে নির্বাচনী উপকরণ। এক কথায় নির্বাচনকেন্দ্রিক সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। এখন সুষ্ঠু ও সহিংসতামুক্ত পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠানেরই প্রত্যাশা।
গণতন্ত্রের ভিতকে শক্তিশালী করতে স্থানীয় সরকার একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা শক্তিশালী না হলে গণতন্ত্রকে তৃণমূল পর্যায়ে পৌঁছে দেয়া অত্যন্ত কঠিন। আর এ কারণেই বর্তমান সরকার স্থানীয় সরকারকে গুরুত্ব দিয়েছে। দলীয়ভাবে নির্বাচন হওয়ায় এবারের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ভিন্ন আমেজ নিয়ে এসেছে প্রার্থী এবং ভোটারদের কাছে। অতীতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নির্দলীয়ভাবে অনুষ্ঠিত হলেও বাস্তবে ঐ সব নির্বাচন রাজনৈতিক দলগুলো প্রভাবমুক্ত ছিল না। এবার রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা সরাসরি অংশ নেয়ায় নির্বাচনে ভিন্ন মাত্রা যুক্ত হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।
আজ সকাল ৮ থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট ইউপি এলাকায় টানা ভোটগ্রহণ চলবে। এটি স্থানীয় সরকারের সর্বনিম্নস্তরের সবচেয়ে বড় নির্বাচন হওয়ায় দেশব্যাপী তৃণমূল পর্যায়ের মানুষের মাঝে এখন বিরাজ করছে উৎসব আমেজ। ঈদ, পূজা-পার্বনে যেমন শহরের মানুষ ছুটে যান গ্রামের বাড়িতে, তেমনি গ্রামের মানুষের সাথে ভোট উৎসবে যোগ দিতে শত শত মানুষ ছুটে যাচ্ছেন নিজের এলাকায়।
প্র্রস্তুতির শেষ মুহূর্তে ভোটার ও প্রার্থীদের অভয় দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. শাহ নেওয়াজ। নির্বাচনে বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটার ব্যাপারে তিনি আশ্বাস দেন। তিনি বলেন, ইউপি নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে। ভোটাররা নির্বিঘ্নে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে। এ জন্য প্রয়োজনীয় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োগ করা হয়েছে।
ইউনিয়ন পরিষদ ভোটের অনিয়ম রোধে কোনো ছাড় না দেয়ার নির্দেশনা দেয়ার পরও দায়িত্বে অবহেলা করলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার শাহ নেওয়াজ। তিনি বলেন, ‘সংঘাত-সংঘর্ষ হলেই ব্যবস্থা নেবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। কোনো সন্ত্রাসী কর্মকা- বরদাশত করা হবে না।’
ইসি কর্মকর্তারা জানান, ইউপিতে প্রথম ধাপে ইতোমধ্যে ৫৪ জন চেয়ারম্যান, ১৭৯ জন সাধারণ সদস্য ও ৫৪ জন সংরক্ষিত সদস্য পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। ২২ মার্চের ভোটে ৩ হাজার ৩৪ জন চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য পদে ২৫ হাজার ৮৪৭ জন ও সংরক্ষিত পদে সাত হাজার ৫৭৫ জন প্রার্থী রয়েছেন। এরপর আরও ৫ ধাপে দেশের বাকি সাড়ে ৩ হাজার ইউপিতে ভোট হবার কথা রয়েছে।

এ ধাপে ৭ হাজার ৮৭টি ভোটকেন্দ্রে ভোট আছে। এসব ভোটকেন্দ্রে বুথের সংখ্যা ৩৮ হাজার ৩৬টি। এ হিসাবে প্রতি কেন্দ্রে ১ জন করে ৭ হাজার ৮৭ জন প্রিজাইডিং অফিসার, প্রতি বুথে ১ জন করে ৩৮ হাজার ৩৬ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার এবং প্রতি বুথে ২ জন করে ৭৬ হাজার ৭২ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। মোট ভোটগ্রহণ করবেন ১ লাখ ২১ হাজার ১৯৫ জন কর্মকর্তা। এতে পুরুষ ভোটার ৫৯ লাখ ৯৫ হাজার ২৬৯ জন এবং নারী ভোটার ৫৯ লাখ ৪২ হাজার ৬৯৪ জন।

নির্বাচনের কারণে ৭৩৪টি ইউপিতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। ফলে নির্বাচনী এলাকায় সকল অফিস বন্ধ থাকবে আজ। ইসি ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী প্রথম ধাপে ২২ মার্চ ৭২০টি, ২৩ মার্চ নাগরপুরে ১১টি এবং ২৭ মার্চ টেকনাফের দুটি ইউপি, দ্বিতীয় ধাপে ৩১ মার্চ, তৃতীয় ধাপে ২৩ এপ্রিল, চতুর্থ ধাপে ৭ মে, পঞ্চম ধাপে ২৮ মে ও ষষ্ঠ ধাপে ৪ জুন ভোট হওয়ার কথা রয়েছে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দিতে নির্বাচন কমিশন (ইসি) ইতোমধ্যে ব্যাপক প্র্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। কমিশনের পক্ষ থেকে নির্বাচনী এলাকায় মাঠে টহল শুরু করেছে বিজিবি, র্যাব, পুলিশ, কোস্টগার্ড ও আনসারসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এক লাখ ৮০ হাজার সদস্য । একই সঙ্গে ৩৪ জেলার ১০১টি উপজেলায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের পাশাপাশি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটরাও অপরাধ তদারকিতে মাঠে রয়েছেন। কমিশনের শেষ মুহূর্তের নির্দেশনায় নির্বাচনে সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ শেষে দ্রুত ফলাফল প্রেরণ করতে বলা হয়েছে। প্রথমবারের মতো দলীয়ভাবে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ নির্বাচনে ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে সবধরনের প্রচার-প্রচারণা। নির্বাচনী আইনানুযায়ী কোনো নির্বাচনী এলাকার ভোটগ্রহণ শুরুর পূর্ববর্তী ৩২ ঘণ্টা, ভোট গ্রহণের দিন সকাল ৮টা থেকে রাত ১২টা এবং ভোটগ্রহণের দিন রাত ১২টা থেকে পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টা সময়ের মধ্যে নির্বাচনী এলাকায় কোনো ব্যক্তি জনসভা আহ্বান, অনুষ্ঠান বা তাতে যোগদান এবং কোন মিছিল বা শোভাযাত্রা করতে বা তাতে যোগদান করতে পারবেন না। এই বিধি লঙ্ঘন করলে অনূ্যন ৬ মাস বা অনধিক ৩ বছরের কারাদন্ডে দন্ডিত হবেন।

Check Also

মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে খুলনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন

মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে খুলনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন

খবর বিজ্ঞপ্তিঃ বি এম রাকিব হাসান, খুলনা ব্যুরো” মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে সাতক্ষীরা ডিবি পুলিশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *