Tuesday , April 20 2021
Breaking News
Home / মেহেরপুর / গাংনী-কুৃষ্টিয়া সড়কের চোখতোলায় রাস্তা নির্মাণে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে নিম্নমানের কাজ করার অভিযোগ।

গাংনী-কুৃষ্টিয়া সড়কের চোখতোলায় রাস্তা নির্মাণে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে নিম্নমানের কাজ করার অভিযোগ।

গাংনী-কুৃষ্টিয়া সড়কের Gangni Chokhtola Road...গাংনী-কুৃষ্টিয়া সড়কের

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম /স্টাফরিপোটার : মেহেরপুরের গাংনী- কুষ্টিয়া প্রধান সড়কের চোখতোলা নামক স’ানে রাসত্মা নির্মাণে ঠিকাদারের বিরম্নদ্ধে নিম্নমানের কাজ করার অভিযোগ উঠেছে। সিডিউল মোতাবেক কাজ না করে নিম্ন মানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে রাসত্মা সংস্কার করা হচ্ছে। সওজ’র দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকৌশলীদের উপসি’তি চোখে না পড়লেও মন’র গতিতে রাসত্মার কাজ করা হচ্ছে।
গণপূর্ত অফিস সূত্রে জানা গেছে, পিএমপি(সড়ক) ২০১৮-১৯ এর আওতায় মেহেরপুর সড়ক বিভাগীয়াধীন কুষ্টিয়া (ত্রিমোহনী)-মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা ঝিনাইদহ আঞ্চলিক মহাসড়কের (আর-৭৪৫) জোড়পুকুর নামক স্থানে (রিগিড পেভমেন্ট) নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রসত্মরস্থাপন করেন মেহেরপুর-২ গাংনী আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাহিদুজ্জামান খোকন। বিগত বছরের ৬ নভেম্বর নির্মাণ কাজ শুরম্ন হলেও সিডিউল অনুযায়ী কাজ করা হচ্ছে না।কাজের ৩ মাস অতিবাহিত হলেও প্রকল্পের বিপরীতে অদ্যাবধি প্রাক্কলিত ব্যয়, দুরত্ব, নির্মাণ কাজের সময় সীমা সম্বলিত সাইন বোর্ড টাঙ্গানো হয়নি। এখনও পর্যনত্ম সাইন বোর্ড না থাকায় এলাকার সচেতন মহল রাসত্মা নির্মান সম্পর্কে কিছুই জানেন না।
সওজ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১৩ কোটি ব্যয়ে ৯৪০ মিঃ রাস্তা সংস্কার করা হবে। আরও জানা গেছে, প্রকল্পের নির্ধারিত স’ানে রাসত্মাটি টেকসই করার লড়্গ্যে ৯ ফুট গভীরতা পর্যনত্ম বালি-খোয়া ভরাট করা হবে। এবং ৪০ ফুট চওড়া রাসত্মার লেভেলে ৯ ইঞ্চি পুরুকরে লোহার রড সিমেন্ট দিয়ে আরসিসি ঢালাই করা হবে । কাজের ৭০ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে সাইড প্রকৌশলী জানালেও আসলে নিম্নমানের কাজ করা হয়েছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, রাস্তার কোথাও ৯ ফুট গভীরতায় বালি দেয়া হয়নি। ৪০ ফুট চওড়া রাস্থার কোন কোন জায়গায় ২০ ফুট চওড়া জায়গাতেও বালি ভরাট করা হয়নি। দেখা গেছে, কোন কোন জায়গায় বালির বদলে মাটি দিয়ে ভরাট করা হয়েছে। রাতের আঁধারে তড়িঘড়ি করে লোকচক্ষুর অন্তরালে পার্শ্বের মাটি দিয়ে রাস্তা  ঢেকে দেয়া হয়েছে। রাস্তার কাজ ৭০ভাগ সম্পন্ন হলেও যানবাহনের চলাচলের কারনে এখনই অনেক জায়গায় রাসত্মা উচু নিচু হয়ে গেছে। কাজের দেখভাল করার জন্য কখনও প্রকৌশলী বা ১ম শ্রেণির ঠিকাদার জহুরম্নল ইসলামের দেখা পাওয়া যায়নি। প্রকৌশলীর অনুপসি’তিতে ই দেদারছে নিম্নমানের কাজ চলছে। দেখা গেছে, পূর্বে রাসত্মা সংস্কারের সময় ৩ ফুট গভীর করে যে বালি-খোয়া দেয়া ছিল, সেই বালি ব্যবহার করে মাটি দিয়ে ঢেকে দেয়া হয়েছে। কখনও কখনও মাত্র একটি মেশিন দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। সরেজমিনে রাসত্মার কাজের গুনগত মান যাচাই করা হলে সব অনিয়ম ধরা পড়বে। নির্মিত রাসত্মার কোন কোন জায়গায় খুঁড়ে পরীড়্গা করা হলে অনিয়ম ধরা পড়বে। রাস্তা উদ্বোধনের পর যেন কেউ দেখার নেই।
এনিয়ে গাংনী উপজেলা প্রকৌশলী গোলাপ আলী সেখ জানান, কাজ নিয়ে আমি কোন মত্মব্য করবো না। তবে ঐ কাজটি এলজিইডির হলে সাংবাদিকরা অনেক লেখালেখি করতো। কিন্ত’ অনিয়মতান্ত্রিকভাবে কাজ সম্পন্ন হলেও কেউ অভিযোগ করছে না।
বিষয়টি নিয়ে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি বা জেলা নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে একাধিকবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।

 

Check Also

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস সীমিত পরিসরে পালিত হয়েছে স্বাধীনতার ৫০ বছরেও স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিদের আস্ফালন কমেনি ——হানিফ

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম / জাহিদ হাসান ঃ আজ ১৭ এপ্রিল। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে মেহেরপুরের মুজিবনগর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *