Friday , February 26 2021
Breaking News
Home / খবর / খুলনাঞ্চলে শীতের সঙ্গে বাড়ছে শিশু রোগীর সংখ্যা

খুলনাঞ্চলে শীতের সঙ্গে বাড়ছে শিশু রোগীর সংখ্যা

খুলনাঞ্চলে শীতের সঙ্গে  বাড়ছে শিশু রোগীর সংখ্যা

ছবি :বি এম রাকিব হাসান 

 বি এম রাকিব হাসান, খুলনা:  মাঘের শুরু থেকেই কমতে শুরম্ন করেছে তাপমাত্রা। ঘর থেকে বের হলেই কনকনে বাতাস যেন শরীরে আঁচড় কাটছে। শীতের সঙ্গে খুলনার হাসপাতালগুলোতে বাড়ছে ঠা-াজনিত রোগে আক্রানত্ম মানুষের সংখ্যা। সবচেয়ে বেশি ভুগছে শিশুরা।
শীত বাড়ায় খুলনার সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে শিশু ও নবজাতক রোগীর সংখ্যা বাড়তে শুরম্ন করেছে। ফলে খুলনা শিশু হাসপাতাল ও আদ্‌-দ্বীন আকিজ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চাপ বেড়েছে। খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতাল ও খুলনা সদর হাসপাতালেরও একই অবস’া।
চিকিৎসকরা বলছেন, শীতে আবহাওয়া শুষ্ক থাকায় বাতাসে জীবাণুর পরিমাণ বাড়ে। এ কারণে ভাইরাসজনিত রোগে শিশুরা বেশি আক্রানত্ম হচ্ছে। শীতের তীব্রতা বাড়তে থাকলে ঠা-াজনিত সমস্যাও বাড়বে। করোনার এ সময় বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। শিশুর দিকে খেয়াল রাখতে হবে এবং বাসায় সব সময় তাকে কাপড় দিয়ে জড়িয়ে রাখতে হবে। শিশু কোনো অবস’ায় যেন ভেজা না থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। তাহলে ঠা-ার সমস্যা থেকে তারা কিছুটা হলেও সুরড়্গা পাবে।
হাসপাতালগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শীতের প্রকোপ বাড়ার সঙ্গে পালস্না দিয়ে বেড়েছে বিভিন্ন রোগ। অনেক বাবা-মা সর্দি, জ্বর, কাশি, নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট ও ডায়রিয়াসহ শীতজনিত নানা রোগে আক্রানত্ম শিশুদের নিয়ে হাসপাতালে এসেছেন।
খুলনা শিশু হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকতা আল-আমিন রাকিব বলেন, হাসপাতালে শিশু ও নবজাতক রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। শীতে কোল্ড ডায়রিয়া, নিউমোনিয়াসহ বিভিন্ন রোগ নিয়ে তারা আসপাতালে আসছে। শিশু হাসপাতালের ২৬০টি জেনারেল বেডের কোনোটিই এখন খালি নেই।
আদ্‌-দ্বীন আকিজ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস’াপক মো. হোসেন আলী বলেন, ঠা-াজনিত রোগে আক্রানত্ম রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। ফলে হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডেও রোগীর সংখ্যা বেড়েছে।
খুলনা ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, ‘শীত বাড়ায় রোটা ভাইরাসজনিত ডায়রিয়াসহ নানা রোগে আক্রানত্ম হচ্ছে শিশুরা। শীতে বাচ্চাদের বিশেষ যত্ন নিতে হবে। তাদের যাতে ঠা-া না লাগে সেদিকে অভিভাবকদের খেয়াল রাখতে হবে। এখন নিপাহ ভাইরাসের সময়। এসময় শিশুসহ সবার খেজুরের রস খাওয়া থেকে দূরে থাকা উচিত। এছাড়া, পাখির আংশিক খাওয়া ফলও খাওয়া ঠিক নয়।
বি এম রাকিব হাসান,
খুলনা ব্যুরো:
২১-০১-২১

Check Also

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮ আহত ১৬

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮ আহত ১৬

গতকাল সড়ক দুর্ঘটনায় দেশের বিভিন্ন স্থানে ৮ জন নিহত ও ১৬ জন আহত হয়েছে। Kbdnewsপ্রতিনিধি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *