Tuesday , December 7 2021
Home / বাংলাদেশ / আইন ও বিচার / দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্যে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত কুষ্টিয়ায় স্ত্রীসহ ওসির বিরুদ্ধে দুদকের সাড়ে ৩ কোটি টাকার মামলা

দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্যে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত কুষ্টিয়ায় স্ত্রীসহ ওসির বিরুদ্ধে দুদকের সাড়ে ৩ কোটি টাকার মামলা

Harendranath-Sarkar-oc

 

হরেন্দ্রনাথ সরকার
কুষ্টিয়া থেকে শরিফ মাহমুদ:  দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্যে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকার সম্পদ অর্জনের দায়ে স্ত্রীসহ এক পুলিশ পরিদর্শকের বিরম্নদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
গত মঙ্গলবার বিকেলে কুষ্টিয়ার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক তহিদুল ইসলামের আদালতে মামলাটি দায়ের করেন দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় কুষ্টিয়ার উপ-সহকারী পরিচালক নাছরম্নলস্নাহ হোসাইন।
মামলায় অভিযুক্ত হলেন- গাংনী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবং বর্তমানে রাঙামাটি জেলার পুলিশ বিশেষ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে (পিএসটিএস) কমর্রত পুলিশ পরিদর্শক হরেন্দ্রনাথ সরকার (৫৩) এবং তার স্ত্রী কৃষ্ণা রাণী অধিকারী।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০০৬ সালের ০৯ জানুয়ারি থেকে ২০১৯ সালের ২১ এপ্রিল সময়কালের মধ্যে বিভিন্ন সময় পুলিশ পরিদর্শক হরেন্দ্রনাথ সরকার আইন বহির্ভূত ও অবৈধ পন’ায় ২ কোটি ৮৭ লাখ ৫৭ হাজার ৭৮৪ টাকা এবং তার স্ত্রী কৃষ্ণা রাণী অধিকারী ৩২ লাখ ৮০ হাজার ৭৪ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন করেছেন।
দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় কুষ্টিয়ার তদনত্মকারী দলের তদনেত্ম প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া যায়। এতে দুদক আইনের ২৬ (২), ২৭ (১) ও মানি লন্ডারিং আইনের ৪ (২ ও ৩) ধারায় সংঘটিত অপরাধ আমলযোগ্য মনে করায় দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় কুষ্টিয়ার উপ-সহকারী পরিচালক নাছরম্নলস্নাহ হোসাইন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন বলে নিশ্চিত করেন দুদক কুষ্টিয়ার লিগ্যাল কর্মকর্তা বাসেদ আলী।
এ বিষয়ে গাংনী থানার সাবেক ওসি এবং বর্তমানে রাঙামাটির পিএসটিএসে কমর্রত পুলিশ পরিদর্শক হরেন্দ্রনাথ সরকারের ফোনে বলেন, ‘হ্যাঁ এর আগে দুদক একটা তদনত্ম করেছিলেন। তবে মামলার বিষয়টি আমার জানা নেই। দয়া করে বিষয়টি ওইসব নিউজ টিউজে আইনেন না। উনারা তো আমার ফাইলপত্রও ঠিকভাবে দেখেনি। আমাকে আত্মপক্ষ সমর্থনেরও সুযোগ দেননি। উনারা আন্দাজে কীভাবে কী করলেন আমি বুঝলাম না’।

 

 কুষ্টিয়ায় স্ত্রীসহ ওসির বিরুদ্ধে দুদকের সাড়ে ৩ কোটি টাকার মামলা
পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত

ম্যাজিষ্ট্রেট’র সঙ্গে দুর্ব্যবহার, কুষ্টিয়ার এসপিকে হাইকোর্টে তলব

কুষ্টিয়া থেকে শরিফ মাহমুদ:  কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার (এসপি) এস এম তানভীর আরাফাতকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। ভেড়ামারা পৌরসভা নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকালে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো.মহসিন হাসানের সঙ্গে অসদাচরণের অভিযোগের বিষয়ে তাকে তলব করা হয়েছে।
আগামী ২৫ জানুয়ারি তানভীর আরাফাতকে স্বশরীরে আদালতে উপসি’ত হয়ে এ বিষয়ে কারণ দর্শাতে বলেছেন দেশের উচ্চ আদালত হাইকোর্ট।
গতকাল বুধবার হাইকোর্টের বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ স্বপ্রণোদিত হয়ে এ আদেশ দেন।
সংশিস্নষ্ট আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. তাহিরুল ইসলাম আদেশের বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।
তাহিরম্নল ইসলাম বলেন, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা পৌরসভা নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকালে একই জেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের ঘটনায় কুষ্টিয়া জেলার পুলিশ সুপারকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ২৫ জানুয়ারি তাকে আদালতে হাজির হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।
এর আগে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহসিন হাসানের সঙ্গে এসপি এস এম তানভীর আরাফাতের দুর্ব্যবহারের বিষয়ে তার বিরম্নদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস’া গ্রহণের জন্য নির্বাচন কমিশনে দাখিল করা একটি আবেদনের কপি সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল কার্যালয়ে পাঠানো হয়। এর অনুলিপি আইন মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও পুলিশের আইজির দফতরেও পাঠানো হয়।
মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) রাতে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আলী আকবর আবেদনের অনুলিপি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
আবেদনে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহসিন হাসান বলেন, ‘কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা পৌরসভা নির্বাচনে ১৪ জানুয়ারি থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যনত্ম প্রথম শ্রেণির জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হই। এরপর ১৬ জানুয়ারি আমার দায়িত্বপালন অবস’ায় সকাল ১০টায় ভেড়ামারা পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে অবস’ানকালে জনৈক ভোটারের অভিযোগের ভিত্তিতে ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করি। সেখানে কতিপয় ব্যক্তিকে ভোটকেন্দ্রের বুথের ভেতর লম্বা বেঞ্চে পোলিং এজেন্টদের সঙ্গে বসে থাকতে দেখি। তখন তাদের পরিচয়পত্র দেখাতে বললে তারা পরিচয়পত্র না দেখিয়ে প্রিসাইডিং অফিসারের স্বাক্ষরিত এ-ফোর সাইজের কাগজ দেখান।’

‘আমি সংশিস্নষ্ট প্রিসাইডিং অফিসারকে এ বিষয়ে কথা বলার জন্য বুথের বাইরে ডাকি। কথা বলা শুরম্ন করতেই ওই ভোটকেন্দ্রে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত ৪০-৫০ জন ফোর্সসহ প্রবেশ করেন। তিনি প্রবেশ করেই প্রিসাইডিং অফিসারকে উচ্চস্বরে তলব করেন। তাৎক্ষণিক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোসত্মাফিজুর রহমানসহ কয়েকজন ফোর্স প্রিসাইডিং অফিসারকে আমার সাথে কথা বলতে না দিয়েই তাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য চাপাচাপি করেন। তখন আমি নিজের পরিচয় দিয়ে বলি প্রিসাইডিং অফিসারের সাথে একটি বিষয়ে কথা বলছি। কথা শেষ হলে উনাকে নিয়ে যান। এরপরও এএসপি মোসত্মাফিজুর রহমান ধমক দিয়ে প্রিসাইডিং অফিসারকে আমার সামনে থেকে নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ সুপার তানভীর আরাফাত আমার দিকে অগ্রসর হন এবং আমাকে জিজ্ঞেস করেন, “আপনি কে? কী করেন এখানে?”
‘আমি আমার পরিচয় দিলে তিনি আরও ক্ষিপ্তস্বরে বলেন, “আপনি এখানে কী করেন? বেয়াদব, বের হয়ে যান এখান থেকে।” আমি পুলিশ সুপার ও তার ফোর্সদের আক্রমণাত্মক চরম অসৌজন্যমূলক ও মারমুখী আচরণে হতচকিত ও কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে সেখানে দাঁড়িয়ে থাকি। এরপর এসপিসহ তার সঙ্গী ফোর্সরা আমার সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় আমাকে উদ্দেশ্য করে একাধিকবার বলেন, “এসব লোককে পাঠায় কে? বেয়াদব ছেলে। এখানে কাজ কী আপনার? বের হয়ে যান এখান থেকে।” তারা কেন্দ্র থেকে চলে যাওয়ার পর আমি বিষয়টি ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করি।’
আবেদনে আরও বলা হয়েছে, ‘পুলিশ সুপার ও তার সঙ্গী ফোর্সদের আচরণ স’ানীয় সরকার নির্বাচন বিধিমালা ২০১০ এর ৬৯, ৭০, ৭৪, ৮০ ও ৮১ বিধির সরাসরি লঙ্ঘন। তাই প্রয়োজনীয় ব্যবস’া গ্রহণের জন্য প্রার্থনা করছি।’

 
মুজিববর্ষে আইডিইবি’র সুবর্ণ জয়নত্মীতে বছরব্যাপি কর্মসূচির অংশ হিসেবে (আইডিইবি) কুষ্টিয়া জেলা শাখার আয়োজনে গতকাল বুধবার সকাল ১০ টার দিকে কুষ্টিয়া পলিটেকনিক ইন্সস্টিটিউট মাঠে ছিন্নমূল গরীব অসহায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া পলিটেকনিক ইন্সস্টিটিউট’র অধ্যড়্গ(ভারপ্রাপ্ত) মোঃ মোশাররফ হোসেন। এ সময় উপসি’ত ছিলেন আইডিইবি’র সদস্য এবং অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। ছবি ও ক্যাপশন: শরিফ মাহমুদ

 

Check Also

কুয়েটের ৯ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

কুয়েটের ৯ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

বিএম রাকিব হাসান, খুলনা ব্যুরোঃ- খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ ৯ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *