Saturday , January 16 2021
Breaking News
Home / বাংলাদেশ / আইন ও বিচার / বিচারপতি সিনহার অর্থ আত্মসাতের মামলায় ব্যাংকারের সাক্ষ্য

বিচারপতি সিনহার অর্থ আত্মসাতের মামলায় ব্যাংকারের সাক্ষ্য

বিচারপতি সিনহার

স্টাফ রিপোর্টার : ফারমার্স ব্যাংকের (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) ঋণের টাকা আত্মসাতে সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহার মামলায় সাক্ষ্য দিয়েছেন পদ্মা ব্যাংক লিমিটেডের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট এম আতিফ খালেদ। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার ৪ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক শেখ নাজমুল আলম তার সাক্ষ্য নেন। পরবতী সাক্ষ্যের জন্য আগামী ২৮ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেছেন বিচারক।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনাকারী দদিকের আইনজীবী মীর আহমেদ আলী সালাম সাংবাদিকদের জানান, সাক্ষ্যে আতিফ খালেদ অবৈধ ঋণ সম্পর্কে একটি তদন্ত দল করে ১০ জনকে অভিযুক্ত করেছিলেন বলে জানান। বিচারপতি সুরেন্দ্র কমিার সিনহাসহ এই ১০ জনের বিরুদ্ধে তাদের প্রতিষ্ঠান থেকে তদন্তে অভিযোগ প্রমানিত হয়েছিল। তারাই এ মামলার আসামি। পরে আসামিপক্ষের আইনজীবী শাহীনুল ইসলাম অনি এবং কামরুল ইসলাম তাকে জেরা করেন। এ নিয়ে মামলার ১৮ সাক্ষীর মধ্যে ১৪ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে।
মামলার আসামিদের মধ্যে ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেডের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুল হক চিশতী (বাবুল চিশতী) কারাগারে, সাবেক এমডি এ কে এম শামীম, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, সাবেক এসইভিপি গাজী সালাহউদ্দিন, টাঙ্গাইলের বাসিন্দা মো. শাহজাহান ও একই এলাকার বাসিন্দা নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা জামিনে আছেন। সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা (বর্তমানে কানাডায়), ফারমার্স ব্যাংকের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, রণজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী সান্ত্রী রায় পলাতক রয়েছেন। গত ১৩ আগস্ট একই আদালত ১১ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে।
২০১৯ সালের ১০ জুলাই দুদকের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা তদন্ত করে একই বছরের ৯ ডিসেম্বর অভিযোগপত্র দেন করেন দুদক পরিচালক বেনজীর আহমেদ। এরপর গত ৫ জানুয়ারি অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে ১১ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন বিচারক।

Check Also

ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকি

ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকি

খুলনা ব্যুরো:  বাগেরহাটের ফকিরহাটে শারমিন সুলতানা প্রিয়া (২৪) নামের এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *