Sunday , January 24 2021
Breaking News
Home / খবর / দৌলতপুরে ট্রলির ধাক্কায় মোটর সাইকেলের আরোহী নিহত

দৌলতপুরে ট্রলির ধাক্কায় মোটর সাইকেলের আরোহী নিহত

কুষ্টিয়া থেকে শরিফ মাহমুদ –  কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় ইট বোঝাই ট্রলির ধাক্কায় মামুন (২২) নামে মোটরসাইকেলের এক আরোহী নিহত হয়েছেন।
গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় উপজেলার কল্যাণপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত মামুন দৌলতপুর উপজেলার মাজদিয়া মুন্সিগঞ্জ এলাকার মুসাব মুন্সির ছেলে।
দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহুরম্নল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কল্যাণপুর এলাকায় দৌলতপুরগামী ইট বোঝাই একটি ট্রলি বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে রাসত্মায় ছিটকে পড়ে ঘটনাস’লেই মারা যান ওই মোটরসাইকেলের আরোহী মামুন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস’ থেকে মামুনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদনেত্মর জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসাপাতাল মর্গে পাঠায়। ঘাতক ট্রলিটি জব্দ করা হয়েছে। তবে দুর্ঘটনার পর এর চালক পালিয়ে গেছেন।

 

দৌলতপুরে ট্রলির ধাক্কায়

ক্যাপশন: চেয়ারম্যান জামিরম্নল ইসলাম বাবু

চাল আত্মসাতের দায়ে কুষ্টিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

কুষ্টিয়া থেকে শরিফ মাহমুদ |  ভুয়া ভিজিডি কার্ডের মাধ্যমে চাল আত্মসাতের দায়ে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার রিফাইয়েতপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবুর নামে দায়ের করা মামলায় তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল আমলি আদালতের বিচারক এনামুল হকের আদালতে জামিন আবেদন চাইলে বিচারক তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
এর আগে, ভুক্তভোগী এক নারীর পক্ষে তার ভাই মুন্না গত ১৭ নভেম্বর চেয়ারম্যান জামিরম্নল ইসলাম বাবুর বিরম্নদ্ধে আদালতে অভিযোগ দিলে এই আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে এজাহারভুক্ত করার জন্য দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দিয়েছেন।
আদালত সূত্রে জানা যায়, দৌলতপুর উপজেলার রিফাইয়েতপুর ইউপি চেয়ারম্যান জামিরম্নল ইসলাম বাবু ওই ইউনিয়নের বাসিন্দা রম্নবিনা খাতুনের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) ব্যবহার করে তার (রম্নবিনা) নামে একটি ভিজিডি কার্ড তৈরি করেন। ওই চেয়ারম্যান রুবিনার ভিজিডি কার্ডের বিপরীতে ২০১৯-২০ বরাদ্দ হওয়া সরকারি চাল নিয়মতি আত্মসাত করেন। কিন’ রম্নবিনা এ ব্যাপারে কিছুই জানতেন না। সমপ্রতি বিষয়টি জানাজানি হলে, রম্নবিনা স’ানীয় মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে জানতে পারেন, তার নামে ২০১৯-২০ অর্থবছরের ভিজিডি কার্ড রয়েছে। সেই কার্ডে নিয়মিত চাল উত্তোলন হয়ে আসছে। তার কার্ড নম্বর ৫১।

Check Also

খুলনাঞ্চলে শীতের সঙ্গে বাড়ছে শিশু রোগীর সংখ্যা

খুলনাঞ্চলে শীতের সঙ্গে বাড়ছে শিশু রোগীর সংখ্যা

ছবি :বি এম রাকিব হাসান   বি এম রাকিব হাসান, খুলনা:  মাঘের শুরু থেকেই কমতে শুরম্ন করেছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *