Sunday , January 24 2021
Breaking News
Home / খবর / গাংনীতে ইজারাদারদের অসদাচরণ ও দৌরাত্মে বামন্দী পশু হাট বন্ধের উপক্রম। অন্যদিকে সাবেক হাটমালিক কামালের পশুহাট জমজমাট

গাংনীতে ইজারাদারদের অসদাচরণ ও দৌরাত্মে বামন্দী পশু হাট বন্ধের উপক্রম। অন্যদিকে সাবেক হাটমালিক কামালের পশুহাট জমজমাট

পশু হাট

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম :   মেহেরপুরের গাংনীতে ইজারাদারদের অসদাচরণ ও দৌরাত্মে বামন্দী পশু হাট বন্ধের উপক্রম হয়েছে।অন্যদিকে সাবেক ইজারাদার (হাটমালিক) কামাল হোসেনের নতুনভাবে প্রতিষ্ঠিত কাতলামারী পশু হাট জমজমাট ভাবে উদ্বোধন করা হয়েছ্‌ে।ফলে বামন্দী পশু হাটের গরম্ন-ছাগল ব্যাপারীরা বামন্দী বাজার ছেড়ে কাতলামারী হাটে ভীড় জমাচ্ছে।
জানা গেছে, চলতি বছরে প্রায় ৩ কোটি টাকামূল্যে নিলামে বামন্দী পশু হাট শহিদুল ইসলাম বিশ্বাস ও তার দল ইজারা গ্রহণ করে। করোনা পরিসি’তিতে কিছুদিন উক্ত হাট বন্ধ ছিল। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে হাট মালিক তাদের লোকসান দেখিয়ে সরকারী রাজস্ব ফাঁকি দিতে মরিয়া উঠে পড়েছে।ইজারাদারদের দুরভিসন্ধিতে একদিকে গাংনীর ঐতিহ্যবাহী হাট নষ্ট হচ্ছে অন্যদিকে সরকার হারাচ্ছে মোটা অংকের রাজস্ব।
কোরবানীর আর মাত্র ১০ দিন বাকী। গরম্ন-ছাগল পালনকারী চাষী, গরম্ন মোটাতাজাকরণ ফার্ম থেকে হাটে প্রচুর গরম্ন-ছাগল আমদানী হয়েছে । জানা গেছে, কুষ্টিয়া জেলার মীরপুরের বিশিষ্ট ঠিকাদার (ইজারাদার) কামাল হোসেন গরম্ন-ছাগল ব্যবসায়ীদের ভালবাসায় উদ্বুদ্ধ হয়ে বামন্দী পশু হাট থেকে প্রায় ৮ কিঃ মিটার দূরে কুষ্টিয়ার মীরপুর উপজেলার সীমানত্ম গ্রাম কাতলামারীর অদূরে কুষ্টিয়া-মেহেরপুর সড়কের পার্শ্বে সরকারী নিয়ম কানুন মেনে অনুমোদন সাপেড়্গে নতুন ভাবে পশু হাট চালু করেছে।
সরেজমিনে কাতলামারী পশু হাট ঘুরে দেখা গেছে, আজ ২০ জুলাই সোমবার হাটের উদ্বোধন হলেও হাটে অসংখ্য সংখ্যক (হাজার হাজার) গরম্ন-ছাগল ক্রয় বিক্রয়ের জন্য জড়ো করা হয়েছে। অন্যদিকে করোনা ভাইরাসের কারণে কিছুদিন বামন্দী পশু হাট বন্ধ থাকলেও সম্প্রতি চালু করা হয়েছে। বামন্দী হাট মালিক (ইজারাদার) ও বামন্দী ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম বিশ্বাস, মনিরম্নজ্জামান আতুসহ তাদের পার্টনারদের অসদারণ ও দাপটের কারণে গরম্ন ব্যবসায়ীরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ীরা ড়্গোভ প্রকাশ করে জানান, বামন্দী হাটে গরম্ন ছাগল ক্রয় বিক্রয়ের মূল্য যাচাই না করে খাজনার নামে অধিকমূল্যে টাকা আদায় করা হচ্ছে। ছাগলের খাজনা হাজার প্রতি ৫০ টাকা এবং গরম্নর খাজনা হাজার প্রতি ৪৫ টাকা আদায় করা হয়ে থাকে।অন্যদিকে কামাল হোসেনের হাটে ছাগলের খাজনা মাত্র ৩ শ’ টাকা এবং গরম্নর খাজনা হাজারে ২০ টাকা করে নেয়া হয়। একদিকে হাটে ব্যবসায়ীদের টাকার নিরাপত্তার অভাব, অন্যদিকে ইজারাদারদের চোখ রাঙ্গানি। এ যেন মগের মুলস্নুক। যে কারনে ব্যবসায়ীরা বামন্দী পশু হাটে গরম্ন ছাগল নিয়ে আসতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে। এভাবে চলতে থাকলে অল্পদিনেই গাংনীর ঐতিহ্যবাহী বামন্দী পশু হাট বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে ব্যবসায়ীরা মনত্মব্য করেছে।
পাশাপাশি দেশের অন্যান্য এলাকায় কোরবানীর চাহিদা পূরণে বিভিন্ন এলাকা থেকে কাতলামারী পশু হাটে অর্থ্যাৎ কামাল হোসেনের হাটে শত শত গরম্ন ব্যবসায়ীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে গরম্ন ক্রয়ে হাটে নিয়ে এসেছে।
এব্যাপারে বামন্দী হাটের মালিক মনিরম্নজ্জামান আতু জানান, আমাদের প্রতিপড়্গ মীরপুরের কামাল হোসেন বামন্দী পশু হাট ইজারা না পেয়ে আমাদের লোকসান ঘটাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। আমাদের সাথে জিদ করে পার্শ্ববর্তী খলিসাকুন্ডিতে পশু হাট স’াপন করে। আমরা হাটের বিরম্নদ্ধে রিট আবেদন করলে ১ বছরের জন্য হাট বন্ধ রাখেতে নির্দেশনা দেয়া হলেও এখনও ২ মাস বাকী থাকলেই কামাল হোসেন হাটের স’ান স’ানাানত্মর করে চালু করেছে। এটা সম্পূর্ণ অবৈধ। আমরা আইনী ব্যবস’া নেব।অন্যদিকে কামাল হোসেন জানান, আমি সকল ব্যবসায়ী ও এলাকার সকল শ্রেণির মানুষের ভালবাসা নিয়ে সরকারী অনুমোদন নিয়ে হাট চালু করেছ্‌ি। আমি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে হাট শুরম্ন করেছি। বামন্দী হাট যতদিন বন্ধ না হচ্ছে ততদিন আমার লোকসান হলেও আমি হাট চালিয়ে যাব।

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম

Check Also

মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার বাড়ি পাচ্ছে ভূমি ও গৃহহীন ৯ লাখ পরিবার

মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার বাড়ি পাচ্ছে ভূমি ও গৃহহীন ৯ লাখ পরিবার

    স্টাফরিপোটার /kjkhan:  সারাদেশে ভূমি ও গৃহহীন ৮ লাখ ৮৫ হাজার ৬২২ পরিবারকে বাড়ি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *