Friday , August 14 2020
Breaking News
Home / বাংলাদেশ / অপরাধ / ২০ লাখ টাকার নকল ওষুধ জব্দ, জরিমানা ৭ লাখ

২০ লাখ টাকার নকল ওষুধ জব্দ, জরিমানা ৭ লাখ

ওষুধ জব্দ

স্টাফ রিপোর্টার :    রাজধানীর মিটফোর্ড এলাকায় নকল, ভেজাল ও অননুমোদিত ওষুধ বিক্রি ও মজুদ করায় পাঁচটি ফার্মেসির মালিককে সাত লাখ টাকা জরিমানা ও এক ফার্মেসি মালিককে দুই বছরের বিনাশ্রম কারাদ- দিয়েছেন র‌্যাব পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া একটি ফার্মেসি সিলগালা করা হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুর ১টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত মিটফোর্ডের আলী চেয়ারম্যান মেডিসিন মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব। অভিযানে অননুমোদিত ওষুধ মজুদ ও বিক্রির প্রমাণ পাওয়ায় তাদের জেল-জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।
ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাব-৩ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু। তিনি বলেন, মিটফোর্ডে নকল, ভেজাল ওষুধের সঙ্গে অননুমোদিত ওষুধ মজুদ করে বিক্রি করা হচ্ছে- এমন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।
ওষুধ জব্দ
অভিযানে মিটফোর্ডের আলী চেয়ারম্যান মেডিসিন মার্কেটে ছয়টি ফার্মেসিতে বিপুল পরিমাণ নকল ভেজাল ও অননুমোদিত ওষুধ বিক্রির প্রমাণ পাওয়া যায়। এ জন্য পাঁচটি ফার্মেসিকে জরিমানা করা হয় সাত লাখ টাকা। এর মধ্যে সেবা মেডিকেল এজেন্সির মালিক মো. নূরুল ইসলামকে দুই লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদ-, মেডিচেইন সার্জিকেলের মো. হাবিবুর রহমানকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের কারাদ-, জামান মেডিসিনের মো. বাহার উল্লাহকে দুই লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদ-, সিমন ড্রাগ হাউজের মো. পারভেজকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের জেল, রিপন মেডিসিন হাউজের মালিক মো. আরিফ হোসেনকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে দুই মাসের কারাদ- দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া মিজান মেডিকেল হল নামে একটি ফার্মেসিতে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন নামকরা কোম্পানির নকল ওষুধ পাওয়া যায়। এ জন্য প্রতিষ্ঠানটির মালিক মোহাম্মদ মিজানুর রহমানকে দুই বছরের বিনাশ্রম কারাদ- এবং প্রতিষ্ঠানটি সিলগালার নির্দেশ দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। প্রতিষ্ঠানটি থেকে আনুমানিক প্রায় ২০ লাখ টাকার নকল ও অননুমোদিত ওষুধ জব্দ করা হয়। অভিযানে অংশ নেয়া ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ ইকবাল বলেন, বিভিন্ন দেশের প্রতিষ্ঠিত কোম্পানির নকল ওষুধ এই মার্কেটে বিক্রি করা হচ্ছিল। এসকেএফের লোসেকটিল, রেনেটার ম্যাঙ্প্রো আমরা এখানে নকল পেয়েছি। এছাড়া ব্যথার ওষুধ নকল পেয়েছি। শুধু ২০ লাখ টাকার নকল ওষুধ জব্দ করেছি। এর বাইরে আন অথরাইজড বা সরকারের অনুমোদন নেই এমন ওষুধ আমদানি করে এখানে বিক্রি করা প্রমাণ পেয়েছি।

ওষুধ জব্দ

Check Also

ইলিশ

জালে ধরা পড়েনি ইলিশ জেলে মহাজনদের মাথায় হাত

শরণখোলা (বাগেরহাট) থেকে মেহেদী হাসান :    ৬৫ দিনের অবরোধ শেষে সাগরে গিয়ে অনেকেই ফিরেছেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *