Friday , August 14 2020
Breaking News
Home / বাংলাদেশ / আইন ও বিচার / গাংনীতে একা পেয়ে পরস্ত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অপচেষ্টা । আদালতে মামলা

গাংনীতে একা পেয়ে পরস্ত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অপচেষ্টা । আদালতে মামলা

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম:   গাংনীর পলস্নীতে দিনের বেলায় বাড়ীতে একা পেয়ে পরস্ত্রীকে ধর্ষণের অপচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ধলা গ্রামের দীনমজুর আসাদুলের নির্যাতিতা স্ত্রী কল্পনা খাতুন স’ানীয়ভাবে সুষ্ঠু বিচার না পেয়ে অবশেষে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছে। ঘটনাটি চলতি মাসের ৬ তারিখে ঘটলেও স’ানীয় পুলিশ ক্যাম্পে অভিযোগ করেও কোন সুরাহা হয়নি। গ্রামে রাজনৈতিক প্রভাব বিসত্মার করে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের অপচেষ্টার মত অপরাধ আমলে নিতে বিলম্ব করেছে স’ানীয় মাতব্বররা। কল্পনা খাতুনের স্বামী আসাদুল হক জানান, অভিযোগ বা মামলা করা হলে প্রাণনাশের হুমকিও দিচ্ছে নারীলোভী লম্পট রাধাগোবিন্দপুর ধলা গ্রামের হাজী আব্দুল খালেকের ছেলে হারম্নণর রশীদ ওরফে হারম্ন।

ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, রাধাগোবিন্দপুর ধলা গ্রামের হারম্নণর রশীদ ওরফে হারম্ন তার বাড়ীতে রাইচ মিল বসিয়ে ব্যবসা করতে। এই ব্যবসার অযুহাতে তার লোলুপ দৃষ্টি পড়ে পরস্ত্রী কল্পনার দিকে। একপর্যায়ে ব্যবসার পরিধি বৃদ্ধি করার নামে পাশ্ববর্তী রামকৃষ্ণপুর ধলা গ্রামের দিনমজুর আসাদুলের বাড়ীতে রাইচ মিল করার জন্য জায়গা চুক্তিবদ্ধ হয়ে মিলঘরের অবকাঠামো নির্মাণ করতে শুরম্ন করে । ঘরের কাজ অদ্যাবধি চলছে। এরই মাঝে ঘটে বিপত্তি। হারম্ন বাড়ীতে একা পেয়ে গত ৬ তারিখের বিকেল বেলায় পানি খাওয়ার নাম করে আসাদুলের স্ত্রী কল্পনার অসম্মতিতে জোরপূর্বক ধর্ষণের অপচেষ্টা চালায়। এসময় তাকে বিবস্ত্র করে যৌনাঙ্গ সহ তার স্পর্শকাতর স’ানে হাত দেয় এবং ধর্ষণের অপচেষ্টা চালায়। জোরপূর্বক তার শাড়ী ও বস্নাউজ ছিড়ে ফেলে । কল্পনা তার ইজ্জত ব্‌াঁচাতে কৌশলে হাসুয়া দিয়ে আঘাত করতে উদ্যত হলে লম্পট পালিয়ে যায়।এসময় কল্পনার স্বামী ও একমাত্র মেয়ে বাড়ীতে ছিল না। এই অপকর্ম ধামাচাপা দিতে চতুর হারম্ন স’ানীয় পুলিশ ক্যাম্পে উল্টো কল্পনাকে দোষী সাব্যসত্ম করতে অভিযোগ দায়ের করে। পুলিশ ক্যাম্প প্রথমতঃ টাকা পয়সা লেনদেন,লিজ বা চুক্তিপত্র বিষয়ক, অভিযোগ পেয়ে সালিশের উদ্যোগ নিলেও পরবর্তীতে কল্পনাকে ধর্ষনের অপচেষ্টার মত সালিস অযোগ্য অপরাধের অভিযোগ নিতে অপারগতা প্রকাশ করে।এক পর্যায়ে কল্পনা সুষ্ঠু বিচার পেতে সরাসরি পুলিশ সুপারের নিকট অভিযোগ দাখিল করে। বিচারের দাবিতে দ্বারে দ্বারে ঘুরে অবশেষে আজ বুধবার কল্পনা খাতুন আদালতে মামলা দায়ের করেছে।
সরেজমিনে কল্পনার স্বামী আসাদুল হকের সাথে আলাপ কালে তিনি জানান, আমার সরলতার সুযোগ নিয়ে লম্পট হারম্ন আমার স্ত্রীর দিকে হাত বাড়িয়েছে।আমার বাড়ীর সামনের জায়গা রাইচ মিল করার নামে ১ লাখ টাকার বিনিময়ে চুক্তিবদ্ধ করার কথা বলে গড়িমসি করছে। বর্তমানে চুক্তির টাকা না দিতে আমি জায়গা দেব না জানালে সে এই অপকর্ম করে আমার ইজ্জত নষ্ট করতে চাই। আমি বিচার চাইলে বা অভিযোগ করলে আমাকে ও আমার স্ত্রীকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। এমনকি গ্রামের মেম্বও ইলিয়াছকেউ ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। আমি লম্পটের উপযুক্ত শাসিত্ম চাই্‌।
অভিযোগ নিয়ে অভিযুক্ত হারম্নর সাথে মোবাইল ফোনে কথা বললে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, এমন কোন ঘটনা ঘটেনি।কল্পনা একটি খারাপ প্রকুতির মেয়ে। কল্পনার অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা।চুক্তিবদ্ধ জায়গা দেবে না অযুহাতে আমার নামে মিথ্যা ধর্ষণের কথা বলছ্‌ে।আপনারা গ্রামে এসে খোঁজখবর নিয়ে নিউজ করলে করেন। যদি জেল জরিমানা হয় তা্‌ও মেনে নেব।
এব্যাপারে গ্রামের মেম্বর ইলিয়াছ হোসেন জানান, এক সপ্তাহ হয়ে গেল। ঘটনাটি মিমাংসার জন্য নানা পরামর্শ বা উদ্যোগ নিলেও হারম্ন গুরত্ব দেয়নি।

 

Check Also

উচ্চ আদালত

পাঁচ মাস পর উচ্চ আদালত খুলছে আজ

স্টাফরিপোটার :   করোনার কারণে বন্ধ থাকা সুপ্রিম কোর্ট প্রায় পাঁচ মাস পর খুলছে আজ। তবে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *