Tuesday , August 4 2020
Breaking News
Home / খবর / সুন্দরবনে দুই মাস মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা: বিপাকে জেলেরা

সুন্দরবনে দুই মাস মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা: বিপাকে জেলেরা

সুন্দরবনে

ছবিবি :এম রাকিব হাসান

বি এম রাকিব হাসান:   সুন্দরবনের নদ নদীতে মৎস্য প্রজনন স্বাভাবিক রাখার জন্য ১লা জুলাই থেকে আগামী দুই মাস মাছ ধরা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে বন বিভাগ গত ২৪ জুন থেকে সুন্দরবনে প্রবেশের জন্য সব পাস ও পারমিট দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।
সূত্রমতে, বৃহত্তর খুলনাঞ্চলের আমিষের চাহিদা মেটানো হয় সুন্দরবনের নদ নদী থেকে প্রাপ্ত মাছের ভিত্তিতে। কিন’ প্রতি বছর অতি মুনাফা লোভীরা সুন্দরবনের বিভিন্ন নদ নদীতে মা মাছ ও রেণু নির্বাচারে আহরণ করে মৎস্য প্রজনন চরম বাধাগ্রসত্ম করে।
বন কর্মকর্তারা বলছেন, এই সময়টায় মাছ ধরা বন্ধ রাখলে মাছের উৎপাদন অনেক বৃদ্ধি পাবে।

সুন্দরবনে
ছবিবি :এম রাকিব হাসান

এদিকে, করোনার প্রভাবে উপকুলীয়াঞ্চলের সুন্দরবনের ওপর নির্ভরশীল মানুষের অনেক কষ্টে দিনাতিপাত করতে হচ্ছে। তার মধ্যে এ নিষেধাজ্ঞার মধ্যেই কোনো বিকল্প পেশার ব্যবস’া না থাকায় সুন্দরবন ও সাগর এলাকার ওপর নির্ভরশীল এ অঞ্চলের হাজার হাজার জেলে বেকার হওয়ার আশঙ্কায় চরম হতাশা আর উৎকণ্ঠার মধ্যে রয়েছেন। মহাজনদের কাছ থেকে নেয়া দাদনের টাকা কিভাবে পরিশোধ করবেন আর সামনের দিনগুলোতে কিভাবে পরিবার পরিজন নিয়ে সংসার চালাবেন সে চিনত্মায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।
বনবিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বনের মধ্যে দিয়ে ভোলা, বলেশ্বর, শ্যালা, পশুরসহ ১৩টি বড় নদ-নদী ও ৪৫০টি ছোট খাল প্রবাহিত হয়েছে। এ সব নদী ও খালে ২১০ প্রজাতির সাদা মাছ, ২৪ প্রজাতির চিংড়ি, ১৪ প্রজাতির কাঁকড়া, ৪৩ প্রজাতির মালাস্কা ও লবস্টার পাওয়া যায়। এ ছাড়াও রয়েছে বিলুপ্ত প্রায় প্রজাতির ইরাবতীসহ ছয় প্রজাতির ডলফিন।
জুলাই ও আগস্ট মাস সুন্দরবনে মাছের প্রজনন মৌসুম। এ প্রজনন মৌসুমে সুন্দরবনের ছোট ছোট খালে মাছের আধিক্য বেশি থাকার সুযোগে এক শ্রেণির অসাধু জেলে গোপনে ছোট খালে বিষ দিয়ে মাছ শিকার করে থাকে। এ কারণে বনের মৎস্য ও অন্য জলজ প্রাণীর নিরাপদ প্রজনন ও সংরড়্গণসহ বিষ প্রয়োগ বন্ধে এ দুই মাস সুন্দরবনের অধিকাংশ খালে মাছ আহরণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
সুন্দরবন বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মোহাম্মাদ বেলায়েত হোসেন জানান,‘সুন্দরবনে মৎস্য সম্পদ রড়্গায় ইন্টিগ্রেটেড রিসোর্সেস ম্যানেজমেন্ট পস্ন্যান’ নামে ১০ বছর মেয়াদি একটি পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।
পরবর্তী সিদ্ধানত্ম না হওয়া পর্যনত্ম প্রতিবছর একই সময়ে সুন্দরবনের অভ্যনত্মরে মাছ আহরণ নিষিদ্ধ থাকবে। এ সময়ে চোরা শিকারিরা যাতে মেতে না উঠতে পারে সে জন্য বনে টহল জোরদার করা হয়েছে।

 

 

সুন্দরবনে
সুন্দরবনে দুই মাস মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা: বিপাকে জেলেরা

 

Check Also

গাংনীতে প্রেমিকার সাথে

গাংনীতে প্রেমিকার সাথে অভিমানে সেনা সদস্য’র বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম : মেহেরপুরের গাংনীতে প্রেমিকার সাখে অভিমানে এক সেনা সদস্য বিষপানে আত্মহত্যার অপচেষ্টা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *