Thursday , September 24 2020
Breaking News
Home / মেহেরপুর / মেহেরপুরে স্বপ্ন পূরণের সিঁড়িতে মেঘলা॥ খরচ জোগাতে অক্ষম প্রতিবন্ধী পিতা

মেহেরপুরে স্বপ্ন পূরণের সিঁড়িতে মেঘলা॥ খরচ জোগাতে অক্ষম প্রতিবন্ধী পিতা

অক্ষম প্রতিবন্ধী পিতা

 মেহেরপুর: মুজিবনগর ইউএনও অফিসে বাবার পাশে মেয়ে।
অক্ষম প্রতিবন্ধী পিতা

Kbdnews:   ছোটবেলা থেকে পাড়ার খেলার সাথীদের নিয়ে চলত ডাক্তার-রোগির খেলা। সেই থেকে অসুস্থ্য মানুষকে সুস্থ্য করে তোলার স্বপ্ন মনের ভেতর লালন করত মেঘলা। সেই স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে চলেছে মেঘলা। চলতি বছরের এসএসসিতে জিপিএ ৫ পেয়ে স্বপ্নের সিঁড়িতে পা রেখেছে মেঘলা। কিন’ মেয়ের লেখাপড়ার খরচ যোগাতে অড়্গম শারিরিক প্রতিবন্ধী পিতা মাইকেল মন্ডল। তাই মেঘলার ভবিষ্যত নিয়ে চিনিত্মত মেঘলাসহ সংখ্যলঘু খ্রীষ্টান পরিবারটি।
সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্মায়নি মেঘলা। জন্মেছে মুজিবনগর উপজেলার রতনপুর খ্রীষ্টান পলস্নীর শারিরিক প্রতিবন্ধী মাইকেল মন্ডলের ঘরে। শারিরিক প্রতিবন্ধী মাইকেল মন্ডলের চায়ের দোকানের উপায় দিয়ে চলে দুই ছেলে-মেয়ের লেখা-পড়াসহ চারজন মানুষের খাওয়া-পরা। তাই বলে কি বড় হওয়ার স্বপ্ন দেখতে নেই?

অক্ষম প্রতিবন্ধী পিতা

মেঘলা ছোট থেকে ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখত। সেই মতে পড়ালেখা করে চলেছে। দিনদিন সে একজন মেধাবী ছাত্রী হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এক ভাই আর এক বোনের মধ্যে ছোট মেঘলা ২০২০ সালের এসএসসি পরীড়্গায় মুজিবনগর উপজেলার বাগোয়ান মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে। ২০১৭ সালে একই বিদ্যালয় থেকে সে জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ ৪.৯ পায়। এ ছাড়া নিজ গ্রাম রতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পিইসি পরীড়্গায় অংশ নিয়ে জিপিএ ৫ পায়। এ বছর সে মেহেরপুর সরকারি কলেজে ভর্তি হয়ে ওই কলেজ হোস্টেলে থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীড়্গায় ভাল রেজাল্ট করতে চায়। তার একমাত্র ভাই ডিপেস্নামা পড়ছে।

অক্ষম প্রতিবন্ধী পিতা

বিজ্ঞান বিভাগে এইচএসসি পড়তে দু’টি বছর প্রতি মাসে মোটা অংকের টাকা গুনতে হবে মা-বাবাকে। এই ভেবেও রাতে ঘুমাতে পারছেন না গৃহিনী মা বন্যা মন্ডল। শারিরিক প্রতিবন্ধী স্বামী মাইকেল মন্ডলের আয়ের একমাত্র পথ চা বিক্রি। তার আয়ে সংসার চালাতে নুন আনতে পানত্মা ফুরায়। তাই তিনি কি করে মেয়ের লেখাপড়ার খরচ যোগাবেন।
অবশেষ আজ সকালে মেঘলাকে সাথে নিয়ে বাবা মাইকেল মন্ডল যান মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উসমান গনি’র নিকটে। মাইকেল মন্ডল অশ্রম্ন ভরা নয়নে এ প্রতিবেদকে জানান- মেয়ের ভাল ফলাফলে বহু মানুষ বাহবাহ দিচ্ছেন। কিন’ একজন প্রতিবন্ধী পিতার মেধাবী মেয়ের লেখা-পড়ার খরচ যোগাতে কেউ পাশে এসে দাঁড়াচ্ছে না। আমিও চাই আমার মেয়ে লেখা-পড়া শিখে অনেক বড় হোক। একদিন সে পরিবারের অভাব আর দুঃখ ঘোচাবে। কিন’ আমি কি করে মেয়ের লেখা-পড়ার খরচ যোগাব?

 অক্ষম প্রতিবন্ধী পিতা

মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওসমান গনি জানান- মেঘলার লেখাপড়ার ভবিষ্যৎ চিনত্মা করে (গত বৃহস্পতিবার) আমার অফিসে বাবা মেয়ে একসাথে এসে ছিলেন। তারা কেঁদে ফেলেন। দোয়া করি মেঘলা মন্ডলের স্বপ্ন পুরণ হোক, তার বাবার মুখে হাসি ফুটুক। আমি মেঘলার ভর্তি খরচের ব্যবস’া করে দিতে পারবো। কিন’ পরবর্তীতে আর্থিক অনটনে তার এ স্বপ্ন অধরা থেকে যাবেনা তো ?

অক্ষম প্রতিবন্ধী পিতা
মেহেরপুরে স্বপ্ন পূরণের সিঁড়িতে মেঘলা॥ খরচ জোগাতে অক্ষম প্রতিবন্ধী পিতা

Check Also

জাতীয় ভিটামিন ‘এ

গাংনীতে জাতীয় ভিটামিন ‘এ ’ পস্নাস ক্যাম্পেইন-২০২০ পালন উপলক্ষ উপজেলা এ্যাডভোকেসী ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম : মেহেরপুরের গাংনীতে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন-২০২০ পালন উপলড়্গে উপজেলা এ্যাডভোকেসী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *