Monday , September 28 2020
Breaking News
Home / মেহেরপুর / গাংনীতে শ্যালকের স্ত্রীর সাথে পরকীয়ার খেসারত ননদ কর্তৃক ভাবী রক্তাক্ত জখম। হত্যাচেষ্টা ব্যর্থ। মামলা

গাংনীতে শ্যালকের স্ত্রীর সাথে পরকীয়ার খেসারত ননদ কর্তৃক ভাবী রক্তাক্ত জখম। হত্যাচেষ্টা ব্যর্থ। মামলা

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম  :  মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার বেতবাড়ীয়া গ্রামের পূর্ব পাড়ায় ননদাই (দুলাভাই ) এর সাথে অবৈধ সম্পর্ক পরকীয়া প্রেমের খেসারত দিতে হলো শ্যালকের স্ত্রীকে।স্বামীর সাথে পরকীয়া প্রেমের ঘটনা ফাঁস হলে ননদ তার ভাবী হাসিয়ারা খাতুনকে হত্যা চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছ্‌ে। পূর্বপরিকল্পনানুযায়ী হত্যা করতে না পারলেও মারাত্মক জখম করেছে ননদ্‌ নাজেরা খাতুন। স্বামীর পরকীয়া সইতে না পেরে অবশেষে ভাবীর মাথায় বটি দিয়ে কোপ দিয়েছে নাজেরা। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার আনুমানিক দুপুর ২ টা ২০মিনিটের সময় বেতবাড়ীয়া শিহালা মাথাভাঙ্গা নদীর পাড়ে।
গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে বেতবাড়ীয়া পূর্ব পাড়ার আইয়ূব হোসেনের ছেলে ৩ সনত্মানের জনক প্রবাস ফেরত মহাবুল ইসলাম তার স্ত্রী নাজেরা খাতুনকে আড়াল করে দীর্ঘদিন যাবত প্রবাসী শ্যালক দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী দুই সনত্মানের জননী হাসিয়ারা খাতুনের সাথে পরকীয়া প্রেমে হাবুডুবু খেয়ে আসছিল। অবৈধ মেলামেশাও হয়েছে তাদের কয়েক বছর ধরে। এ ঘটনা জানাজানি হলে সামাজিকভাবে বিচার সালিশও হয়েছে। তারপরেও তাদের প্রেমের ফাটল ধরাতে পারেনি পরিবার ও সমাজ। গত বছর দু’জন ভালবাসার টানে ঘরও ছেড়েছিল।মহাবুল আসলে খারাপ চরিত্রের লোক। অনেক মেয়ের সাথে প্রতারণা করে তাদের সম্ভ্রম হানি করেছে। এভাবেই চলছিল তাদের প্রেমের লুকোচুরি। ঘটনার আগের দিন রাতে আপত্তিকর অবস’ায় দু’জনকে ধরে ফেলে মহাবুলের স্ত্রী নাজেরা খাতুন। তখন থেকেই পরিকল্পনা করতে থাকে ঐ নষ্টা মহিলাকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে ফেলতে। হাসিয়ারা খাতুন পরদিন দুপুরে বাড়ীর অদূরে মাথাভাঙ্গা নদীতে গোসল করতে গেলে ওৎ পেতে থাকা ননদ নাজেরা বটি দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে সজোরে মাথায় কোপ মারে। এত হাসিয়ারা খাতুন মাথায় রক্তাক্ত জখম নিয়ে মাটিয়ে লুটিয়ে পড়ে। স’ানীয়রা উদ্ধার করে গাংনী উপজেরা স্বাস’্য কমপেস্নক্সে ভর্তি করে।
এ বিষয়ে হাসিয়ারা খাতুন জানায় , আমি একসময় ভুলক্রমে মহাবুল কে ভালবেসে তার সাথে ঘর ছেড়েছিলাম। স্বামী মালয়েশিয়া প্রবাসী হওয়ায় বর্তমানে ২ সনত্মান নিয়ে আমি বসবাস করে থাকি। মহাবুল পূণরায় প্রায়শঃ কুপ্রসত্মাব দিয়ে প্রাণনাশের ভয়ভীতি দেখিয়ে আমার সাথে মেলামেশা করে। আমাকে বার বার মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ননদ ও তার পরিবারের লোকজন মারপিট করে থাকে। আমি গাংনী থানায় একটি অভিযোগ করেছি। মামলা তুলে না নিলে প্রাণনাশের হুমকি অব্যাহত থাকায় আমি চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছি। ননদের অত্যাচারে জীবনের ভয়ে আমি ২ সনত্মান নিয়ে পার্শ্ববর্তী শিহালা গ্রামে বাবার বাড়ীতে চলে এসেছি।
এব্যাপারে গাংনী থানার ওসি ওবাইদুর রহমান জানান, হাসিয়ারা খাতুন একটা অভিযোগ করেছ্‌ে। সরেজমিনে তদনত্ম সাপেড়্গে দোষীদের বিরম্নদ্ধে আইনানুগ ব্যবস’া নেয়া হবে।
আমিরুল ইসলাম অল্ডাম
মেহেরপুর

Check Also

ব্রডগেজ রেললাইন

ব্রডগেজ রেললাইন নির্মাণের জন্য সম্ভাব্যতা যাচাই ও ডিজাইন- শীর্ষক প্রকল্প

আজ ২৫শে সেপ্টেম্বর মেহেরপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে দুপুরে দর্শনা থেকে মুজিবনগর এবং দামুড়হুদা হয়ে মেহেরপুর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *