Sunday , December 6 2020
Breaking News
Home / বাংলাদেশ / নিরুপায় কেউ খোঁজ নেয়নি’

নিরুপায় কেউ খোঁজ নেয়নি’

pane

পাড়ার নাম নলুয়ারডাঙ্গা। ১০ পরিবারের বাস। ৯ পরিবার হতদরিদ্র। গত শনিবার পাড়ায় প্রথম পানি ওঠে। এখন পাড়ার চারদিকে অথই পানি। রাস্তাঘাট সব ডুবে গেছে।

নিরুপায় অনাহারী লোকজন বাধ্য হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই পাড়া থেকে সাঁতরে আশ্রয় নিয়েছে আধা কিলোমিটার দূরের একটি স্কুলে। ওই পাড়ার অবস্থান রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নে।

গতকাল দুপুরে ওই পাড়ায় গিয়ে দেখা যায়, বাড়ি থেকে বুকপানি মাড়িয়ে নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে ছুটে যাচ্ছেন ইমরেজা বেগম (৫০), মনোয়ারা বেগম (৪০), মিজানুর রহমান (৩২) ও তারা বানু (৩৫)। অতি কষ্টে তাঁরা সবার বাড়ি থেকে অন্তত আধা কিলোমিটার দূরে আশ্রয় নেন, ওই ইউনিয়নের আশরাফগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

ইমরেজা বলেন, ‘আমার দুই সন্তান। পাঁচ দিন ধরে ঘরে পানিবন্দী ছিলাম। মরলাম না বাঁচলাম কেউ খোঁজ নেয়নি। খাবার মতো পানি বা রান্না করারও জায়গা ছিল না। অনেকটা না খেয়ে কাটিয়েছি। ভাবছিলাম পানি কমবে। কিন্তু কমেনি। আরও বাড়তেই আছে। তাই জীবন বাঁচাতে এখানে (আশ্রয়কেন্দ্রে) চলে আসলাম।’

মনোয়ারা বলেন, ‘পানি কমবে ভেবে ঘরের উঁচু চৌকিতে পাঁচ দিন ধরে না খেয়ে পড়ে ছিলাম। কেউ খোঁজ নেয়নি। এখন চৌকিও ডুবে গেছে।’ গৃহবধূ তারা বলেন, ‘পাড়ার চাইরোপ্যাকে পানি আর পানি। চাইর বাচ্চা নিয়া কোনটে যাই? চুপ করি না খায়া ঘরোতে আছনো। ভোটের সমায় কত নেতা ও চেয়ারম্যান-মেম্বার বাড়িত আসি ভোট চায়। আইজ বিপদের সমায় ক্যাঁয়ো হামার খবর নিল না।’

উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বী বলেন, ‘বদরগঞ্জে বন্যায় গ্রামের পর গ্রামে পানি উঠেছে। আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করছি পানিবন্দী ও আশ্রয়শিবিরে ত্রাণসামগ্রী পৌঁছানোর। নলুয়ারডাঙ্গায় অসহায় লোকজন ত্রাণ না পেয়ে থাকলে দ্রুত তা পাঠিয়ে দেওয়া হবে।’ ইউএনও মো. রাশেদুল হক বলেন, ‘আমরা ঘুরে ঘুরে পানিবন্দী মানুষের খোঁজ-খবর নিচ্ছি। ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।’

 

 

 

Check Also

ঢাকার ভাস্কর্যগুলো

ঢাকার ভাস্কর্যগুলো আমাদের ইতিহাসের বিভিন্ন ঘটনার প্রতীক,

স্টাফরিপোটার :   ভাস্কর্য দেখে কে অবাক হয় না? বলা হয়ে থাকে ভাস্কর্য বুদ্ধিমত্তার শিল্প। ভাস্কর্যগুলো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *