Thursday , October 1 2020
Breaking News
Home / বাংলাদেশ / প্রায় ৩৮ কোটি টাকা দেনা নিয়ে যশোর মেয়র রেন্টু’র পথচলা শুরু

প্রায় ৩৮ কোটি টাকা দেনা নিয়ে যশোর মেয়র রেন্টু’র পথচলা শুরু

যশোর থেকে শেখ দিনু আহমেদ: অবিভক্ত বাংলার প্রাচীনতম যশোর পৌরসভার সার্বিক অবস্থা ও আগামী দিনের কর্মপরিকল্পনা এবং দুর্নীতিমুক্ত আধুনিক বাসযোগ্য মডেল পৌরসভা গড়ার লক্ষ্যে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের সাথে নাগরিক সংলাপ করেছেন নবনির্বাচিত মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু। মেয়র হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণের দুই দিনের মাথায় এ নাগরিক সংলাপ করেন তিনি। ৮ মার্চ বিকেলে স্থানীয় যশোর পৌর কমিউনিটি সেন্টার প্রাঙ্গণে ‘নাগরিক সংলাপ’ অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতির বক্তব্যে জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু বলেন, বর্তমানে দেনার দায়ে জর্জরিত যশোর পৌরসভা। ৩৭ কোটি ৭৮ লাখ ২ হাজার ২শ’ ৩৫ টাকা দেনা নিয়ে দায়িত্বভার গ্রহণ করেছি। তিনি বলেন, উল্লেখযোগ্য দেনার মধ্যে রয়েছে বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ১৭ কোটি ৫৫ লাখ ৪৯ হাজার ২৯৯ টাকা, ডিএমডিএফ লোন ৯ লাখ ৭৭ হাজার ১৫৪ টাকা, কর্মচারিদের পিএফ ও গ্রাজুয়েটি ৯ কোটি ২৭ লাখ টাকা, ঠিকাদারি বিল ২ কোটি ৬০ লাখ টাকা, ঠিকাদারি জামানত বকেয়া ৪০ লাখ টাকা, কর্মচারীদের বকেয়া বেতন-ভাতা ৩ কোটি ১০ লাখ টাকা, পৌরসভার নিজস্ব জমির খাজনা ৬০ লাখ টাকা, জ্বালানি তেল ৩৬ লাখ ৫ হাজার টাকা, বিবিধ বিল ১৮ লাখ ৯০ হাজার টাকা ও সিডিএফ-এর পাওনা ১৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা। এ বিশাল ঋণ থেকে কীভাবে উত্তরণ হওয়া যাবে সে ব্যাপারে উপস্থিত নাগরিকদের কাছে সুপরামর্শ চান তিনি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যশোর জেলা প্রশাসক ড. মো. হুমায়ুন কবীর। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখে_ যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের সুযোগ্য চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল আরিফ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) শহীদ আবু সরোয়ার ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক আব্দুল মজিদ।

মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু আরও বলেন, পৌরসভার সার্বিক কার্যক্রমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত এবং বর্তমান আর্থিক অসচ্ছলতা ও কর্মকা-ে স্থবিরতা কাটিয়ে নাগরিকদের উত্তম সেবা দিতে চাই। পৌরবাসীর মতামতের ভিত্তিতে কর্মপরিকল্পনা তৈরি করে এ লক্ষ্য বাস্তবায়ন করা হবে। সংলাপে প্রবীণ ও নবীনদের মতামত এবং সহযোগিতা নিয়ে যশোর শহরকে একটি আধুনিক যানজটমুক্ত, নিরাপদ, স্বাস্থ্যসম্মত, বিনোদনের সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত আধুনিক নগরী গড়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি। মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন যশোর নাগরিক অধিকার আন্দোলন কমিটির আহ্বায়ক মাস্টার নুর জালাল, প্রেসক্লাব যশোর’র সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান তোতা, যশোর সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি একরাম উদ্ দ্দৌল্লা, ন্যাপের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এড. এনামুল হক, জেলা বিএমএ সভাপতি ডা. একেএম কামরুল ইসলাম বেনু, কবি ও সাংবাদিক ফখরে আলম, উদীচী যশোর’র সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান মজনু, জেলা জাসদের সহ-সভাপতি আহসান উল্লাহ ময়না, রাইটস্ যশোর’র নির্বাহী পরিচালক বিনয় কৃষ্ণ মলি্লক, জেলা পূজা উদযাপনব পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দীপংকর দাস রতন, চাঁদের হাট যশোর’র সাধারণ সম্পাদক ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, এড. সোহেল শামীম, সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম, বাংলাদেশ পরিবহণ সংস্থা শ্রমিক সমিতির সভাপতি আজিজুল আলম মিন্টু, ইমাম হাসান লাল, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ধারা্থর নির্বাহী পরিচালক লিপিকা দাশগুপ্তা, সুসমাজ ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা জিন্নাতুন নাহার শীলা, ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর হোসেন, হাজী জাকির হোসেন, লাবু জোয়াদ্দার প্রমুখ। সংলাপ পরিচালনা করেন যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু। সংলাপে সাবেক মেয়র মারুফুল ইসলাম মারুফের বিরুদ্ধে নানাবিধ অনিয়মের অভিযোগ তুলে ধরা হয় । সাবেক মেয়র মারুফের সময় ১০২ জন মাস্টার রোল কর্মচারী নিয়োগের বৈধ্যতা নিয়ে নাগরিকরা প্রশ্ন তোলেন এবং নতুন মেয়রকে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে বিহিত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। এছাড়া প্রাচীনতম এই পৌরসভায় কোনো প্রবেশদ্বার না থাকায় নাগরিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সংলাপে যশোর পৌরসভার শেষ প্রান্তগুলোতে প্রবেশদ্বার নির্মাণের জন্য নতুন মেয়রের হস্তক্ষেপ কামনা করেন পৌর নাগরিকরা।

Check Also

বেসরকারি মেডিকেলে

বেসরকারি মেডিকেলে ৭৫ শতাংশ স্থায়ী শিক্ষক রাখার শর্তে আইনের খসড়া অনুমোদন

স্টাফ রিপোর্টার :    বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে ৭৫ শতাংশ স্থায়ী শিক্ষক রাখতে হবে। ২৫ শতাংশের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *