Tuesday , August 11 2020
Breaking News
Home / বিনোদন / ভ্যালেন্টাইনস ডের ইতিকথা

ভ্যালেন্টাইনস ডের ইতিকথা

খ্রিস্টপূর্ব তৃতীয় শতাব্দীতে ভ্যালেন্টাইন নামে একজন পাদ্রি ছিলেন। তখন রোমান সম্রাট ছিলেন দ্বিতীয় ক্লদিয়াস। সেই সময় চরম অস্থিরতা ছিল পুরো রাজ্যে। রাজ্য রক্ষায় তৎপর ছিলেন কর্তাব্যক্তিরা। অবিবাহিত পুরুষ নিয়ে যুদ্ধ ভালোভাবে হবে এ বিবেচনা করে সম্রাট পুরুষদের বিয়ে নিষিদ্ধ করেন। ঘোষিত এ নির্দেশের প্রতি সাধারণ মানুষের ছিল শ্রদ্ধা, তেমনি ভয়। কারণ তখন রাজার আইন না মানলে শাস্তি নিশ্চিত ছিল।

একক সিদ্ধান্তে হতো সবকিছু। কিন্তু এ কথা মানতে রাজি ছিলেন না পাদ্রি ভ্যালেন্টাইন। তিনি তরুণ-তরুণীদের গোপনে বিয়ে দিতে থাকেন। তার গোপন মিশন ফাঁস হয়ে যায়। সম্রাটের নির্দেশ অমান্য করায় মৃত্যুদ- হয় ভ্যালেন্টাইনের। দিনটি ছিল ২৭০ খ্রিস্টাব্দের ১৪ ফেব্রুয়ারি। মৃত্যুর আগে তিনি লিখে যান শেষ চিঠি। এতে শেষ কথাটি ছিল ঠিক এ রকম ‘ফ্রম ইওর ভ্যালেন্টাইন’। মূলত ২৬৯ খিস্টাব্দে ভ্যালেন্টাইনস ডের প্রেক্ষাপট তৈরি হয়। ২২৬ বছর পর মেলে দিবসটির উদযাপনের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি। ৪৯৬ খ্রিস্টাব্দে রোমের রাজা পপ জেলুসিয়ান এ দিবসকে ভালোবাসা দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন। কিন্তু ভালোবাসার নির্দিষ্ট কোনো ব্যাখ্যা নেই। তবে ভালোবাসা আছে বলে হাজারো মানুষ পৃথিবীতে এখনো শান্তিতে আছে। মানুষের স্বপ্ন ডানা মেলে। ১৪ ফেব্রুয়ারি ভ্যালেন্টাইনস ডে বা ভালোবাসা দিবস পালিত হলেও এটি আসলে চিরন্তন, প্রতিদিনের-প্রতিমুহূর্তের। এই দিনটিকে সার্থক করতে তরুণ-তরণীদের মাঝে উচ্ছ্বাসের যেন কমতি নেই। পাশাপাশি বিভিন্ন সংগঠনের রয়েছে নানা প্রস্তুতি। ফুলের দোকানগুলোর প্রস্তুতিও বেশ। এছাড়া চ্যানেলগুলো ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে আয়োজন করেছে নানা অনুষ্ঠানমালার। বিভিন্ন স্থানে একাধিক সংগঠনের ব্যানারে বের হবে ভালোবাসার শোভাযাত্রা, র‌্যালি, সূচনা সংগীত, ভালোবাসার স্মৃতিচারণ, কবিতা আবৃত্তি, গান, ভালোবাসার চিঠি পাঠ এবং ভালোবাসার দাবিনামা উপস্থাপনসহ আরও বিভিন্ন কর্মসূচি।

Check Also

জাতীয় সংগীত

গাংনীতে উপজেলা পর্যায়ে শুদ্ধসুরে জাতীয় সংগীত পরিবেশন প্রতিযোগিতা-২০২০ অনুষ্ঠিত

  আমিরুল ইসলাম অল্ডাম :  জাতীয় সঙ্গীত আমাদের প্রাণের সঙ্গীত।বিশ্ব দরবারে জাতীয় পতাকা ও জাতীয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *